হাদীছের তত্ত্ব ও ইতিহাস

৪৪। মাওলানা ফজলুর রহমান ছাহেব

[মৃঃ ১৩৮৪ হিঃ মোঃ ১৯৬৪ ইং]

তিনি ১৮৮৬ ইং চট্টগ্রাম জিলার বাঁশখারী থানার অন্তর্গত জলদী গ্রামে এক প্রসিদ্ধ আলেম খান্দানে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতা মৌলবী আবদুল কাদের, চাচা মৌলবী খাদেম আহমদ ও অপর চাচাও আলেম ছিলেন। দুই তিন পুরুষ পূর্বে এই খান্দানে একজন ওলীআল্লাহও গোজারিয়াছেন।

তিনি প্রাথমিক জ্ঞান আপন চাচা মৌলবী খাদেম আহমদের নিকট লাভ করার পর ১৯০৪ সালে চট্টগ্রাম মোহছিনিয়া মাদ্রাছায় ৩য় শ্রেণীতে ভর্তি হন এবং প্রত্যেক শ্রেণীতেই বৃত্তিলাভ করিয়া ১৯১৩ উলা পাস করেন। পাস করার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি চট্টগ্রাম দারুল উলুম মাদ্রাছায় শিক্ষকরূপে নিয়োজিত হন। এক বৎসর শিক্ষকতা করার পর ১৯১৪ ইংতিনি হাদীছে উচ্চ শিক্ষা লাভের উদ্দেশ্যে দেওবন্দ দারুল উলুম গমন করেন। তথায় তিনি আল্লামা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী ও মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানী প্রমুখ মনীষীবৃন্দের নিকট হাদীছ-তফছীর প্রভৃতি এলম শিক্ষা করেন। তথাকার পরীক্ষায়ও তিনি প্রথম স্থান অধিকার করেন এবং ঘড়ি ইত্যাদি বহু জিনিস এনআমরূপে লাভ করেন।

দেওবন্দ হইতে ফিরিয়া তিনি পূনরায় চট্টগ্রাম দারুল উলুমে শিক্ষাদান কার্যে আত্মনিয়োগ করেন এবং একাদিত্রমে ৪৬ বৎসর তথায় সহকারী শিক্ষক, সুপারেন্টেণ্ডেন্ট ও প্রিন্সিপাল পদে বহাল থাকেন। ১৯৫৯ ইং তিনি দারুল উলুম হইতে পদত্যাগ করিয়া পটিয়া জমিরিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাছায় শায়খুল হাদীছ ও পৃষ্ঠপোষখের কার্যভার গ্রহণ করেন। আমি তাঁহার নিকট দারুল উলুমে মেশকাত শরীফ পড়িয়াছি।

তিনি হজরত মাওলানা আশরাফ আলী থানবীর নিকট মুরীদ হন এবং হজরত মাওলানা জফর আহমদ থানবী হইতে খেলাফত লাভ করেন। তিনি একজন বিখ্যাত মোহাদ্দেছ এ নীরবপ্রকৃতির বুজুর্গ আলেম ছিলেন। তিনি ১৯৬৪ সালের ৩রা অক্টোবর তাঁহার নিজ বাড়ীতে এন্তেকাল করেন।

৪৫। মাওলানা আলী আ’জম ছাহেব

[মৃঃ ১৩৮৪ হিঃ মোঃ ১৯৬৪ ইং]

তিনি ১৯১৯ ইং নোয়াখারী জিলার আজীজ ফাজিলপুর (দাগন ভুঁইয়া) গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মুনসী কারামত আলী। তিনি প্রথমে দাগন ভুঁইয়া মাদ্রাছায় জমাতে পঞ্জম পর্যন্ত  শিক্ষা লাভ করেন, অতঃপর কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে ১৯৩৩ ইং ‘মোমতাজুল মোহাদ্দেছীন’ ডিগ্রীপ্রাপ্ত হন। শিক্ষা সমাপ্তির পর তিনি দুই বৎসরকাল রিসার্চ করেন এবং ইমাম গাজ্জারীর দর্শন সম্পর্কে একটি নিবন্ধ লিখেন।

অতঃপর তিনি বেসরকারী স্বুল ও কলিকাতা মাদ্রাছায় কিছুদিন অস্থায়ীভাবে শিক্ষকতা করেন। ১৯৪১ ইং স্কুল শিক্ষকরূপে সরকারী চাকুরীতে যোগদান করেন এবং ১৯৪৮ ইং ঢাকা আলিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষকপদে নিয়োজিত হন। ঢাকা আলিয়া মাদ্রাছায় অধ্যাপনাকালে তিনি ১৯৬৪ ইং সালের ২রা নভেম্বর হৃদরোগে এন্তেকাল করেন। মাদ্রাছায় তিনি হাদীছের ইবনে মাজাহ শরীফ শিক্ষা দিতেন।

তাঁহার রচনাবরীঃ

১। ‘তা’লীমে দ্বীন’ ২। ‘আরবী তরজমা ও রচনা শিক্ষা’ ৩। ‘হজরত বড় পীর ছাহেবের জীবনী’।

৪৬। মাওলানা আফতাব উদ্দীন সাহেব

তিনি কুমিল্লা জিলার লাকসামের অধিবাসী ছিলেন। তিনি সাহারনপুর মাজাহেরে উলুম মাদ্রাছায় হাদীছ শিক্ষা করেন এবং মাওলানা গঙ্গুহীর নিকট মুরীদ হন।

৪৭। মাওলানা মোহাম্মদ ইদ্রীছ ছাহেব

তিনি কুমিল্লা মতলব থানাধীন এখলাছপুরের অধিবাসী ছিলেন। তিনি প্রথমে কলিকাতা আলিয়া মাদ্রছায় হাদীছ অধ্যয় করেন, অতঃপর শায়খুল হিন্দ মাওলানা মাহমুদুল হাছান প্রমুখ ওস্তাদগণ হইতে উহার পুনঃ ছনদ লাভ করেন।

৪৮। মাওলানা ইমামুদ্দীন ছাহেব

জেলওয়া, লাকসাম, কুমিল্লা। তিনি দেওবন্দ দারুল উলুম মাদ্রাছায় হাদীছ শিক্ষা করেন।

৪৯। মাওলানা মোহাম্মদ ফজলুল হক ছাহেব

তিনি আনুমানিক ১৩১৯ বাং জন্মগ্রহণ করেন। তিনি স্থানীয় মাদ্রাছায় প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা সমাপ্ত করিয়া কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে ১৯৩৯ ইং হাদীছে কামেল পাস করেন। তিনি নোয়াখালীর ওলামাবাজার হোছাইনিয়া মাদ্রাছার মোহতামেম ছিলেন।

৫০। মাওলানা ফরজাম আলী ছাহেব

তিনি সিলেট জিলার বরখসীর অধিবাসী ছিলেন। মাওলানা রশীদ আহমদ গঙ্গুহীর নিকট তিনি হাদীছ শিক্ষা করেন।

৫১। মাওলানা মুফতী বেলায়েত হোছাইন ছাহেব

নোয়াখারী জিলার সুধারাম থানাধীন অশ্বদিয়া গ্রামে তাঁহার জন্ম হয়। তিনি প্রথমে আহমদিয়া মাদ্রাছা হইতে উলা পাস করেন, অতঃপর দেওবন্দ দারুল উলুম হইতে হাদীছের ছনদ লাভ করেন। হজরত মাওলানা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী প্রমুখ মোহাদ্দেছীন তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। তিনি নোয়াখালী ইছলামিয়া মাদ্রাছার একজন বিশিষ্ট মোহাদ্দেছ ও মুফতী ছিলেন।

৫২। মাওলানা মুফতী বেলায়েত হোছাইন ছাহেব

নোয়াখারী জিলার সুধারাম থানাধীন অশ্বদিয়া গ্রামে তাঁহার জন্ম হয়। তিনি প্রথমে আহমদিয়া মাদ্রাছা হইতে উলা পাস করেন, অতঃপর দেওবন্দ দারুল উলুম হইতে হাদীছেল ছনদ লাভ করেন। হজরত মাওলানা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী প্রমুখ মোহাদ্দেছনি তাঁহার হাদীচের ওস্তাদ। তিনি নোয়াখার ইছলামিয়া মাদ্রাছার একজন বিশিষ্ট মোহাদ্দেছ ও মুফতী ছিলেন।

৫২। মাওলানা মোফাজ্জালুর রহমান ছাহেব

তিনি চট্টগ্রাম জিলার সাতকানিয়ার অন্তর্গত সুখচরীর অধিবাসী ছিলেন।

৫৩। মাওলানা মেহেরুল্লাহ ছাহেব

তিনি চট্টগ্রাম জিলার চাঁদপুর মহকুমাধীন পাইকাদী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

৫৪। মাওলানা মোহাম্মদ আবদুল হাকীম ছাহেব

তিনি চট্টগ্রাম জিলার সাতকানিয়ার অধিবাসী ছিলেন। তিনি মাওলানা গঙ্গুহীর নিকট হাদীছ শিক্ষা করিয়াছিলেন।

৫৫। মাওলানা মোহাম্মদ করীম বখশ

তিনি নোয়াখারী জিলার ভবনীগঞ্জের অধিবাসী ছিলেন।

৫৬। মাওলানা কেরামত আলী ছাহেব

তিনি কুমিল্লা জিলার পোমবাইশ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি হাটহাজারী মুঈনুল ইছলাম মাদ্রাছায় ফনুনাতের বিভিন্ন বিষয় ও হাদীছ শিক্ষা করেন। মাওলানা হাবীবুল্লাহ ছাহেব, মাওলানা ছাঈদ আহমদ ছাহেব, মুফতী ফয়জুল্লাহ ছাহেব প্রমুখ তাঁহার তথাকার ওস্তাদ। তিনি বরুড়া মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দিয়াছেন।

শিক্ষাদানে রত মোহাদ্দেছগণ

যে সকল মোহাদ্দেছ বর্তমানে হাদীছ শিক্ষাদানে রত আছে তাঁহাদের সংক্ষিপ্ত জীবনী বিশেষ করিয়াত তাঁহারা হাদীছের কোথায় কাঁহাদের নিকট শিক্ষা করিয়াছেন এবং কোথায় উহা শিক্ষা দিয়াছেন বা দিতেছেন –তাহা জানার জন্য প্রত্যেক মাদ্রাছায় পত্র দ্বারা আবেদন করিয়াছিলাম। পুনঃ পুনঃ তাকিদ করা সত্ত্বেও কয়েকটি মাদ্রাছার পক্ষ হইতে কোন উত্তর পাওয়া যায় নাই। যাঁহাদের পক্ষ হইতে উত্তর পাওয়া গিয়াছে, তাঁহাদের অনেকে আবার কোথায় হাদীছ শিক্ষা করিয়াছেন ও কোথায় উহা শিক্ষা দিতেছেন –এই দুইটি বিশেষ কথা ছাড়া আর কিছুই জানান নাই। সুতরাং তাঁহাদের সম্পর্কে ইহার অধিক কিছু লেখা আমার পক্ষে সম্ভবপর হয় নাই। এছাড়া কাহারও বিস্তারিত জীবনী আলোচনা করা আমার উদ্দেশ্যও নহে। আমার উদ্দেশ্য শুধু প্রত্যেকের ‘ছনদে হাদীছ’ বর্ণনা করা।

যাঁহাদের সম্পর্কে আমি কোনরূপ মন্তব্য করিয়াছি তাঁহাদের সহিত আমার ব্যক্তিগত পরিচয় থাকার কারণে অথবা বিশ্বস্তসূত্রে অবগত হওয়ার কারণেই তাহা করিয়াছি এবং যাঁহাদের সম্পর্কে কোনরূপ মন্তব্য করি নাই তাঁহাদের সহিত আমার পরিচয় না থাকার কারণে অথবা অবগত না হওয়ার কারণেই করিত পারি নাই, তাঁহাদের গুণের অভাবের কারণে নহে।

(আ)

১। মাওলানা আইনুদ্দীন

তিনি ১৯২২ ইং ময়মনসিংহ জিলার কিশোরগঞ্জ মহকুমায় জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মরহুম ফজলে আলী। তিনি কিছুদিন মঙ্গলবাড়িয়া মাদ্রাছায়, অতঃপর দেওবন্দ দারুল উলুমে ‘ফনুনাত’ শিক্ষা করেন। হাদীছ তিনি ডাবিলে মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানীর নিকট, পুনরায় দেওবন্দ দারুল উলুমে মাওলানা হোছাইন আহমদ প্রমুখ ওস্তাদগণের নিকট শিক্ষা করেন।

স্বদেশ ফিরিয়া তিনি যথাক্রমে আওলিয়াপাড়া ও দিপেশ্বর ছিনিয়র মাদ্রাছায় শিক্ষকতাক করেন। ১৯৪৩ ইং তিনি হয়বতনগর আলিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষক পদে নিয়োজিত হন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দিতেছেন।

২। মাওলানা আখতারুজ্জামান

তিনি চট্টগ্রাম জিলার সাতকানিয়া থানার অধিবাসী। তিনি প্রথমে জিরী অতঃপর দেওবন্দ দারুল উলুমে হাদীছ শিক্ষা করেন। স্বদেশ ফিরিয়া তিনি চারিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাছায় প্রায় পাঁচ বৎসরকাল হাদীছ শিক্ষা দেন।

৩। মাওলানা আজিজুল্লাহ

তিনি ১৩০১ বাং নোয়াখালী জিলার লক্ষ্মীপুর থানার অন্তর্গত শামগঞ্জ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মুনসী ইমামুদ্দীন। তিনি দৌলতপুর মাদ্রাছায় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করিয়া কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে কৃতিত্বের সহিত ছুয়ম ও উলা পাস করেন, অতঃপর সাহারনপুরে ফনুনাত ও দেওবন্দে হাদীছ শিক্ষা করেন। মাওলানা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী, মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানী প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ।

তিনি প্রথমে ৭ বৎসরকাল লক্ষ্মীপুর ছিনিয়র মাদ্রাছায় তৎপর ১৯২৮ ইং হইতে কারামতিয়া আলিয়া মাদ্রাছায় যথাক্রমে ছিনিয়র শিক্ষক ও সুপারেন্টেণ্ডেন্ট পদে কাজ করেন। ১৯৫৫ ইং। হইতে তিনি তথাকার প্রিন্সিপাল।

৪। মাওলানা আজীজুল হক

মাওলানা আজীজুল হক ছাহেব ঢাকা জিলার বিক্রমপুর নিবাসী মরহুম হাজী এরশাদ আলী ছাহেবের পুত্র। তিনি প্রথমে ঢাকা আশরাফুল উলুম মাদ্রাছায় প্রথম শ্রেণী হইতে হাদীছে দাওরা পর্যন্ত শিক্ষালাভ করেন। এখানে তিনি মাওলানা জফর আহমদ ওছমানী ও মাওলানা শামছুল হক ফরিদপুরী প্রমুখ ওস্তাদগণের নিকট হাদীছ শিক্ষা করেন, অতঃপর ডাবিল গমন করিয়া তথায় মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানী প্রমুখ মোহাদ্দেছের নিকট পুনঃ হাদীছ অধ্যয়ন করেন।

স্বদেশ ফিরিয়া তিনি প্রথমে ঢাকা আশরাফুল উলুমে মাদ্রাছায় শিক্ষকতা করেন। বর্তমানে তিনি লালবাগ জামেয়া কোরআনিয়ার মোহাদ্দেছ। তিনি একজন বিজ্ঞআলেম ও বিশিষ্ট মোহাদ্দেছ। আরবী ভাষায় তাঁহার বিশেষ জ্ঞান রহিয়াছে।

তিনি বোখারী শরীফের বঙ্গানুবাদ করিতেছেন। ৪ খণ্ডে ‘মাগাজী’ পর্যন্ত প্রকাশিত হইয়াছে এবং দেশবাসীর নিকট খুব সমাদর লাভ করিয়াছে। তিনি হাদীছের মোছলেম শরীফ অধ্যয়নকালে মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানীর ‘তকরীর’ (বক্তৃতা) লিপিবদ্ধ করিয়াছিলেন, উহা এখন পাণ্ডুলিপি আকারে তাঁহার নিটক বিদ্যমান আছে। এছাড়া তাঁহার আরও কয়েকটি কিতাব রহিয়াছে।

৫। মাওলানা আজীজুর রহমান ‘ইজ্জতী’

মাওলানা আজীজুর রহমান ইবনে আলহাজ্জ মৌলবী ফজলুর রহমান নোয়াখালী ঝিলার লক্ষ্মীপুর থানাধীন শেরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে বৃত্তির সহিত ছুয়ম ও উলা পাস করেন এবং ১৯৩০ ইং হাদীছে ‘ফখরুল মোহাদ্দেছীন’ ডিগ্রী লাভ করেন।

তিনি বহুদিন হইতে বগুড়া মোস্তাফাবিয়া আলিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষকতা করিয়া আসিতেছেন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছার মোহাদ্দেছ। তাঁহার লিখিত কিতাবসমূহের মধ্যে ‘শামায়েলে তিরমিজীর বঙ্গানুবাদ’ বিশেষ উল্লেখযোগ্য।

৬। মাওলানা আজীজুর রহমান

তিনি বাকেরগঞ্জ জিলার নেছারাবাদ গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মৌলবী মুফীজুর রহমান। তিনি শর্ষিণা দারুছ ছুন্নাত জামেয়ায়ে ইছলামিয়া হইতে ফাজেল ও কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে হাদীছে কামেল পাস করেন। অতঃপর তিনি শর্ষিণা দারুছ ছুন্নাত আলিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষকাত কার্যে আত্মনিয়োগ করেন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছার ভাইস প্রিন্সিপাল। তিনি শর্ষিণা হইতে প্রকাশিত পাক্ষিক ‘তবলীগ’ পত্রিকার প্রধান সম্পাদক এবং হিজবুল্লাহ জমাআতের ‘নাজেম’ বা সেক্রেটারী। তিনি বাংলা ভাষায় বহু কিতাব লিখিয়াছেন। তন্মধ্যে ‘হেদায়াতুল কোরআন’ বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

৭। মাওলানা মোহাম্মদ আজীমুদ্দীন

তিনি ১৩১১ বাং ময়মনসিংহ জিলার অমরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মৌলবী মোহাম্মদ নজীবুল্লাহ। তিনি ঢাকা হাম্মাদিয়া মাদ্রাছা হইতে উলা পাস করিয়া মুরাদাবাদ হইতে ফনুনাত ও হাদীছে দাওরা পাস করেন। পুনরায় তিনি দারুল উলুম দেওবন্দ হইতে হাদীছ-এর ছনদ লাভ করেন। মাওলানা ছৈয়দ হোছাইন আহমদ মদনী প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। স্বদেশ প্রত্যাবর্তন করিয়া তিনি যথাক্রমে ময়মনসিংহ দারুল উলুম, মুক্তাগাছা, তারাকান্দি ও ইছলামপুর মাদ্রাছায় শিক্ষকতা করেন। বর্তমানে তিনি সোহাদী কওমী মাদ্রাছায় হাদীছের ওস্তাদ।

৮। হাফেজ মাওলানা আতহার আলী

তিনি সিলেট জিলার অন্তর্গত গোঙ্গাদিয়া নামক গ্রামে এক দ্বীনদার পরিবারে ১৩০৯ হিঃ মোছ ১৮৯১ ইং জন্মগ্রহণ করেন। স্থানীয় মাদ্রাছায় প্রাথমিক শিক্ষা লাভেল পর তিনি মুরাদাবাদের কাছেমিয়া মাদ্রাছায় ও রামপুর ষ্টেটের আলিয়া মাদ্রাছায় ফনুনাতের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করেন।

হাদীছ তিনি দারুল উলুম দেওবন্দে অধ্যয়ন করেন। আল্লামা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী ও মাওলানা শিব্বীর আহমদ ওছমানী প্রমুখ মোহাদ্দেছীন তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ।

জাহেরী এলম হাছিল করিবার পর তিনি বাতেনী এলম লাভের জন্য হাকীমুল উম্মত হজরত মাওলানা আশরাফ আলী থানবীর খেদমতে উপস্থিত হন এবং তথায় একাধানে তিন বৎসর অবস্থান করিয়া বাতেনী এলমে খেলাফত লাভ করেন।

দেশে প্রত্যাবর্তন করিয়া তিনি প্রথমে সিলেট ও কুমিল্লায় বিভিন্ন মাদ্রাছায় অধ্যাপনা করেন, অতঃপর মোমেনশাহী জিলার কিশোরগঞ্জ এলাকায় হেদায়েতের কাজে আত্মনিয়োগ করেন। তথায় তিনি শহীদী মসজিন নামে এক বিরাট মসজিদ ও ১৯৪৫ ইং সনে ‘জামেয়া এমদাদিয়া’ নামে এক বিরাট মাদ্রাছা কায়েম করেন। বর্তমানে তিনি উহার পৃষ্ঠপোষক ও পরিচালক।

তিনি দীর্ঘদিন পূর্বপাকিস্তান ‘জমিয়তে ওলামা’ ও ‘নেজামে ইছলাম’ পার্টির সভাপতি ছিলেন। ১৯৫৪ ইং তিনি প্রাদেশিক ও জাতীয় পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি একজন বিচক্ষণ আলেম ও হক্কানী পীর।

৯। মাওলানা মোহাম্দ আতিকুর রহমান

তিনি চট্টগ্রাম জিলার আনোয়ারা থানার অধিবাসী। তিনি প্রায় ৭ বৎসরকাল চারিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দেন।

১০। মাওলানা মোহাম্মদ আনীছূর রহমান হাশেমী

তিনি ময়মনসিংহ জিলার গফরগাঁও থানাধীন তললী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মুনসী আবদুর রহমান। তিনি দারুল উলুম দেওবন্দ হইতে হাদীছ ও ফনুনাত শিক্ষা করেন। শিক্ষা সমাপ্তির পর তিনি মুক্তাগাছা আলিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষাদান কার্যে আত্মনিয়োগ করেন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছার প্রিন্সিপাল।

১১। মাওলানা মোহাম্মদ আফলাতুন কায়ছার

তিনি ১৯২৯ ইং নোয়াখালী (হালে চট্টগ্রাম) জিলার সন্দ্বীপ থানাধীণ মুছাপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মৌলবী মতীউর রহমান। তিনি প্রথমে সন্দ্বীপ জিয়াউল উলুম মাদ্রাছায় শিক্ষা গ্রহণ করেন, অতঃপর ১৯৫৫ ইং পর্যন্ত পাঁচ বৎসরকাল দারুল উলুম দেওবন্দে ফনুনাত ও হাদীছ অধ্যয়ন করেন। মাওলানা ছৈয়দ হোছাইন আহমদ মদনী, মাওলানা এ’জাজ আলী, মাওলানা ফখরুল হাছান মোরাদাবাদী ও মাওলানা ইব্রাহীম বৈলয়াবী প্রমুখ তাঁহার তথাকার ওস্তাদ।

স্বদেশ ফিরিয়া তিনি রায়পুর আলিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষাদানে আত্মনিয়োগ করেন।

১২। মাওলানা আবুতালেব

তিনি চট্টগ্রাম জিলার চারিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মরহুম হাফেজ আশরাফ আলী। তিনি প্রথমে হাটহাজারী ও চারিয়া মাদ্রাছায়, অতঃপর দেওবন্দ দারুল উলুমে হাদীছ ও ফনুনাত শিক্ষা করেন।

স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের পর বিগত ১০ বৎসরকাল যাবৎ তিনি চারিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষঅ দিতেছেন।

১৩। মাওলানা আবদুল আওয়াল

তিনি ১৯৩৩ ইং কুমিল্লা জিলার বরুড়া থানাধীন মইশাইর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতা মাওলান আবদুল খায়ের নোয়াখারী ইছলামিয়া মাদ্রাছার মোহাদ্দেছ। তিনি নোয়াখালী ইছলামিয়া হইতে ফাজেল এবং যথাক্রমে ফেনী ও ঢাকা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে কামে হাদীছ ও কামেল ফেকাহ পাস করেন। মাওলনা দেলওয়ার হোছাইন, মাওলানা ওবাইদুল হক ও মাওলানা আবদুল মান্নান প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। কামেল পরীক্ষার পর গবেষণা বৃত্তিলাভ করিয়া তিনি এক বৎসরকাল গবেষণা করেন। বর্তমানে তিনি ফরিদগঞ্জ আলিয়া মাদ্রাছার মোহাদ্দেছ। তাঁহার নিম্নলিখিত দুইখানা কিতাব রহিয়াছে।

১। আল এজআন  (আরবী***********) (প্রকাশিত) ২। আওনুল ওয়াদুদ (আরবী***********)

১৪। মাওলানা আবদুল আজীজ বখতপুরী

তিনি ১৩৩৬ হিঃ চট্টগ্রাম জিলার ফটিকছড়ি থানাধীন বখতপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৩৫৯ হিঃ তিনি দেওন্দ দারুল উলুম হইতে হাদীছে দাওরা পাস করেন। ১৩৬১ হিঃ হইতে তিনি হাটহাজারী কওমী মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষাদানে নিয়োজিত আছেন। তিনি মাওলানা আবদুল ওহহাব ছাহেবের খলীফা।

১৫। মাওলানা আবদুল আজীজ (ঝিঙ্গাবাড়ী)

তিনি অনুমান ১৯১৫ ইং সিলেট জিলার কানাইঘাট থানাধীন ঝিঙ্গাবাড়ী গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন, পিতার নাম মোহাম্মদ লাল মিঞা। তিনি ঝিঙ্গাবাড়ী ও সিলেট আলিয়া মাদ্রাছা হইতে সরকারী বৃত্তি সহকারে যথাক্রমে আলেম ও ফাজেল পাস করেন। অতঃপর তিনি কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছায় কামেল কোর্স সমাপ্ত করেন এবং আসাম বোর্ড হইতে উহার পরীক্ষা দেন। পরীক্ষায় তিনি প্রথম স্থান অধিকার করেন। মাওলানা মাজেদ আলী, মাওলান ইয়াহইয়া প্রুমখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ।

তিনি প্রথমে আসাম প্রদেশের গৌড়িপুর মদীনাতুল উলুম মাদ্রাছায়, অতঃপর ঝিঙ্গাবাড়ী মাদ্রাছায় ১২/১৩ বৎসর হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দেন। ১৯৪৯ ইংতিনি সিলেট এবং ১৯৫৫ ইং ঢাকা আলিয়া মাদ্রাছায় অধ্যাপক নিযুক্ত হন। তিনি বর্তমানে হাদীছের আবু দাঊদ শরীফ শিক্ষা দিতেছেন।

১৬। মাওলানা আবদুল আজীজ

আবুল খায়ের মোহাম্মদ আবদুল আজীজ ইবনে আলহাজ্জ মুনসী মোহছেন উদ্দীন মোল্লা খুলনা জিলার চালিতাবুনিয়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি শর্ষিণা দারুছ ছুন্নাত আলিয়া মাদ্রাছা হইতে যথাক্রমে ফজেল ও হাদীছে কামেল পাস করেন। শর্ষিণার তৎকালীন মোহাদ্দেছগণ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ।

শিক্ষা সমাপ্তির পর তিনি উক্ত মাদ্রাছায় শিক্ষক পদে নিযুক্ত হন এবং হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষাদানে আত্মনিয়োগ করেন। কিমিয়ায়ে ছাআ’দতের বঙ্গানুবাদ ‘সৌভাগ্যের পরশ পাথর’ নামে তাঁহার একখানা কিতাব রহিয়াছে।

১৭। মাওলানা ছৈয়দ আবদুল আহাদ কাছেমী

তিনি ১৯২১ ইং মুঙ্গের জিলার ‘কসবা’ নামক স্থানে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। পিতার নাম ছৈয়দ ইমামুদ্দীন মরহুম। ১৯৩১ ইং তিনি পিতার কারবারের স্থান ঢাকায় আগমন করেন এবং দুই বৎসর ইছলামিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষালাভ করেন। অতঃপর তিনি মাওলানা মোদ্দাছির সিলেটী ও প্রসিদ্ধ মান্তেকী মাওলানা হাছান রাজা সিলেটীর নিকট আপন ঘরে বসিয়া ফনুনাত শিক্ষা দিয়া আলেম ও ফাজেল পাস করেন। অতঃপর দারুল উলুম দেওবন্দ যাইয়া তিনি তিন বৎসরকাল ফনুনাতসহ হাদীছ অধ্যয়ন করেন। শায়খুল ইছলাম মাওলানা মদনী ও ছৈয়দ আছগর হোছাইন দেওবন্দী প্রমুখ মোহাদ্দেছীন তাঁহার হাদীছের বিশিষ্ট ওস্তাদ এবং মাওলানা এ’জাজ আলী, মাওলানা ইব্রাহীম বৈলয়াবী ও মাওলানা শামছুল হক আফগানী প্রমুখ তাঁহার হাদীছ ও উচ্চ পর্যায়ের ফনুনাতের ওস্তাদ।

শিক্ষা সমাপ্তির পর তিনি ঢাকা হাম্মাদিয়া, ইছলামিয়া ও দারুল উলুম মাদ্রাছায় প্রধান শিক্ষকের পদে দীর্ঘ দিন কাজ করেন এবং ১৯৬০ ইং উহা ত্যাগ করিয়া কিতাব রচনায় আত্মনিয়োগ করেন। ১৯৬১ ইং ও ১৯৬২ ইং দুই বৎসরকাল তিনি কিশোরগঞ্জ জামেয়া এমদাদিয়া ছদরোল মোদাররেছ ও নাজেমে তা’লীমাত পদে কার্য করেন এবং হাদীছেল তিরমিজী শরীফ শিক্ষা দেন। বর্তমানে তিনি পুনরায় রচনাকার্যে আত্মনিয়োগ করিয়াছেন।

তিনি হজরত মাওলানা মদনীর নিকট ‘বয়ত’ করেন এবং ৭ বৎসর যাবৎ প্রত্যেক রমজান মাসে সিলেটে তাঁহার খেদমতে হাজির থাকেন।

তিনি একজন ‘হরফনী’ আলেম ও সুলেখক। আরবী ভাষায়ও তাঁহার বিশেষ দক্ষতা রহিয়াছে। তিনি বহু বিষয়ে বহু কিতাব রচনা করিয়াছেন। -[তাঁহার রচনাবলীঃ (আরবী*********************************************** টীকায়)]

১৮। মাওলানা আবদুল ওয়াহেদ (রাজারগাঁও)

মাওলানা আবদুল ওয়াহেদ ইবনে মোয়াজ্জম মিয়া ১৯০৮ ইং সিলেট জিলার রাজারগাঁও গ্রামে (পোঃ সোনাতোলা) জন্মগ্রহণ করেন। তিনি প্রাথমিক শিক্ষা ‘ইমদাদুল ইছলাম’ মাদ্রাছায় সমাপ্ত করিয়া যথাক্রমে ঝিঙ্গাবাড়ী ও সিলেট আলিয়া মাদ্রাছায় ফনুনাত ইত্যাদি এলম শিক্ষা করেন। অতঃপর তিনি কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছা হইতে ‘ফখরুল মোহাদ্দেছীণ’ ডিগ্রীলাভ করেন। মাওলানা ইয়াহইয়া ছাহছারামী ও মাওলানা হোছাইন আহমদ মদনীর নিকট হইতেও তিনি হাদীছের ‘এজাজত’ লাভ করেন।

তিনি বিগত ১৫ (পনের) বৎসর যাবৎ সিলেট আলিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ ও ফেকাহ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দিতেছেন।

১৯। হাফেজ ক্বারী মাওলানা আবদুল ওয়াহেদ (ধীৎপুর)

তিনি ময়মনসিংহ জিলার দীৎপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মুনসী মরহুম মমরুজ আরী। তিনি সাহারনপুর মাদ্রাছায় হাদীছ ও ফনুনাত শিক্ষা করেন। মাওলানা ছৈয়দ আবদুল লতীফ ও মাওলানা জাকারিয়া ছাহেব প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। বর্তমানে তিনি ময়মনসিংহের বালিয়া আশরাফুল উলুম মাদ্রাছায় মোহাদ্দেছ।

২০। ‘পীরজী’ মাওলানা আবদুল ওহহাব ছাহেব

তিনি কুমিল্লা জিলার হোমনা থানার অন্তর্গত রামকৃষ্ণপুর গ্রামে অনুমান হিজরী চতুর্দশ শতাব্দীর প্রথম দশকে জন্মগ্রহণ করেন। দেশে প্রাথমিক শিক্ষা গ্রহণের পর তিনি ঢাকা মোহছিনিয়া মাদ্রাছায় অধ্যয়ন করেন। অতঃপর তিনি দেওবন্দ গমন করেন এবং তথায় হাদীছ ও ফনুনাতের উচ্চ শিক্ষা লাভ করেন। আল্লামা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী প্রমুখ মোহাদ্দেছ তাঁহার হাদীছেল ওস্তাদ। তিনি দীর্ঘ দিন প্রসিদ্ধ ক্বারী আবদুল ওহীদ এলাহাবাদী, দেওবন্দী ছাহেবের খেদমতে থাকিয়া এলমে কেরাআতের ছনদ হাছেল করেন। মা’রেফাতের এলম তিনি মাওলানা জফর আহমদ ওছমানী হইতে লাভ করেন।

প্রথমে তিনি ব্রাক্ষ্মণবাড়িয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাছায় শিক্ষকতা করেন, অতঃপর ঢাকা আশরাফুল উলুম মাদ্রাছা প্রতিষ্ঠা করিয়া তথায় হাদীছ-তফছীর শিক্ষা দিতে আরম্ভ করেন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছার মোহতামেম। তিনি একজন বিজ্ঞ আলেম ও বিখ্যাত পীর।

২১। মাওলানা আবদুল ওহহাহ ছাহেব

তিনি কুমিল্লা জিলার লক্ষ্মীপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মাওলানা আবদুর রহমান। তিনি প্রথমে চারিয়া কাছেমুল উলুম, অতঃপর দারুল উলুম দেওবন্দে হাদীছ শিক্ষা করেন। মাওলানা ছাঈদ ছাহেব ও হজরত মাওলানা হোছাইন আহমদ মদনী প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। তিনি দীর্ঘদিন বরুড়া কওমী মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষা দেন। বর্তমানে তিনি চানপুরের এক মাদ্রাছায় আছেন।

২২। মাওলানা আবদুল ওহহাব (হাটহাজারী)

তিনি ১৩২০ হিঃ চট্টগ্রাম জিলার হাটহাজারী থানাধীণ রুহুল্লাহপুর গ্রামে বিখ্যাত কাজী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম আবদুল হাকীম। তিনি প্রথমে হাটহাজারী অতঃপর যথাক্রমে সাহারনপুর ও দেওবন্দ দারুল উলুমে ফনুনাত ও হাদীছ শিক্ষা করেন। মাওলানা হাবীবুল্লাহ চাটগামী ও  আল্লামা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ হাটহাজারী মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলম শিক্ষঅ দিয়াছেন। বর্তমানে তিনি তথাকার মোহতামেমে আ’লা বা প্রধান পরিচালক। তিনি হজরত মাওলানা আশরাফ আলী থানবীর একজন বিশিষ্ট খলীফা ও জবরদস্ত আলেম।

২৩। মাওলানা আবদুল ওয়াদুদ (বদরপুরী)

তিনি ১৩৪৫ বাং কুমিল্লা জিলার মতলব থানার অন্তর্গত বদরপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম আবদুল মজীদ। তিনি ১৩৮৩ হিঃ হাটহাজারী মাদ্রাছঅ হইতে হাদীছে দাওরা পাস করেন। মাওলানা মুফতী ফয়জুল্লাহ ছাহেব ও মাওলানা আবদুল কায়্যুম ছাহেব প্রমুখ তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। শিক্ষঅ সমাপ্তির পর পর তিনি যশোর রেল ষ্টেশন কওমী মাদ্রাছায় হাদীছ ইত্যাদি বিষয় শিক্ষাদানে আত্মনিয়োগ করেন।

২৪। মাওলানা আবদুল ওয়াদুদ ছাহেব

তিনি ১৩০৫ হিঃ নোয়াখারী (হালে চট্টগ্রাম) জিলার অন্তর্গত সন্দ্বীপ থানাধীন চররহীম অঞ্চলে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম শায়খ আফছারুদ্দীন। তিনি দারুল উলুম দেওবন্দে ফনুনাত ও হাদীছ-তফছীর প্রভৃতি এলম শিক্ষা করেন। শায়খুল হিন্দ মাওলানা মাহমুদুল হাছান ও মাওলানা আনওয়ার শাহ কাশ্মীরী প্রমুখ মোহাদ্দেছীন তাঁহার হাদীছের ওস্তাদ। তিনি বিগত ৪৪ বৎসর যাবৎ জিরী ইছলামিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলমের দরছ দান করিতেছেন। বর্তমানে তিনি উক্ত মাদ্রাছার শায়খুল হাদীছ। তিনি একজন বুজুর্গ আলেম ও বিখ্যাত মোহাদ্দেছ। (জিরী মাদ্রাছঅ কর্তৃক প্রেরিত লেখা নিতান্ত অসম্পূর্ণ বিধায় তথাকার কোন মোহাদ্দেছেরই পূর্ণ পরিচয় দেওয়া সম্ভবপর হইল না।)

২৫। মাওলান আবদুল কুদ্দুছ (বরিশালী)

তিনি বরিশাল জিলার গুয়াটন গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মরহুম মুনসী ছফীর উদ্দীন। তিনি নোয়াখালী হইতে ফাজেল পাস করেন এবং কলিকাতা আলিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ ও তফছীর শিক্ষা করেন। বিগত ২৯ বৎসর হইতে তিনি শর্ষিণা আলিয়া মাদ্রাছায় হাদীছ-তফছীর প্রভৃতি এলম শিক্ষা দিয়া আসিতেছেন।

তাঁহার রচনাবলীঃ

১। ‘লুবাবুত তাওয়ারীখ’, ২। ‘মোফাচ্ছল, উর্দু ফুছুলে আকবরী’, ৩। ‘উর্দু মীজান মুরশাআব’, ৪। ‘আখেরাতের সম্বল’, ৫। ‘হ্জ্জ ও যিয়ারত’।

২৬। মাওলানা আবদুল কুদ্দুছ ছাহেব

তিনি ১৩৪৯ হিঃ চট্টগ্রাম জিলার রাঙ্গুনিয়া থানাধীন কোদাল গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁহার পিতার নাম মুনসী জোবায়েদ আলী। তিনি নিজ গ্রামে প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করিয়া পটিয়া জমিরিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাছায় ফনুনাত ও হাদীছ শিক্ষা করেন। বর্তমানে তিনি চারিয়া কাছেমুল উলুম মাদ্রাছায় হাদীছ প্রভৃতি এলমের দরছ দান করিতেছেন।

২৭। মাওলানা আবদুল করীম ছাহেব

তিনি কুমিল্লা জিলার অধিবাসী। পিতার নাম হাজী আফতাবুদ্দীন। তিনি রামপুর আলিয়া মাদ্রাছায় ফনুনাত এবং মাতলাউল উলুম হাদীছ অধ্যয়ন করেন। তিনি প্রায় ২৫ বৎসর যাবৎ শর্ষিণা আলিয়া মাদ্রাছায় ফনুনাত ও হাদীছ শিক্ষা দিতেছেন।

২৮। মাওলানা আবদুল কবীর ছাহেব

তিনি নোয়াখালী জিলার বটতলী গ্রামের মাওলানা আবদুল আজীজ ছাহেবের চতুর্থ পুত্র। তিনি নিজ বাড়ীর মাদ্রাছায় প্রাথমিক শিক্ষা সমাপ্ত করিয়া দেওবন্দ দারুল উলুমে ফনুনাত, হাদীছ ও তফছীর শিক্ষা করেন। তিনি মাওলানা ছৈয়দ হোছাইন আহমদ মদনী, মাওলানা ইব্রাহীম বৈলয়াবী ও মাওলানা ক্বারী তৈয়্যব দেওবন্দী প্রমুখ ওস্তাদগণের নিকট হাদিছ শিক্ষা করেন। বর্তমানে তিনি লালবাগ জামেয়া কোরআনিয়ায় হাদীছ শিক্ষা দিতেছেন।

 

About মাওলানা নূর মোহাম্মদ আ’জমী (রঃ)